ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার দুর্গম গ্রামে জমি অধিগ্রহণের চেক বিতরণ

/
/
/
336 Views

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফরিদপুরে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ (১ম ও ২য় পর্যায়) প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির মালিকদের মাঝে ক্ষতিপূরণের ২ কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ৭০৯ টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলার ভাঙ্গা উপজেলার ভাঙ্গা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ওই প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণকৃত জমির ৮৫ জন জমি মালিকদের মাঝে এসব চেক বিতরণ করা হয়।

এসময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল-আমিন ও ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা তিথি মিত্র সহ উপজেলা পর্যায়ের সংশ্লিষ্ট দফতরের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। এসময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ আল আমীন বলেন, শেখ হাসিনার লক্ষ্য হচ্ছে ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত দেশ গড়া। সেই লক্ষ্য কে সামনে রেখেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

ক্ষতিপূরণের এই চেক বিতরণের জন্য বৃহস্পতিবার বিকেলে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা তিথি মিত্রের নেতৃত্বে সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ছুটে যান ভাঙ্গার হোগলাডাঙ্গি ও হরিরহাট গ্রামে। দুর্গম গ্রামের ইটমাটির রাস্তা পেরিয়ে তারা ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে তুলে দেন এসব ক্ষতিপূরণের চেক। ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা তিথি মিত্র বলেন, জেলা প্রশাসক অতুল সরকারের নির্দেশনায় আমরা তাই সেবা প্রদানের জন্য জনগণের দোরগোড়ায় পৌছে যাচ্ছি।

জানা যায়, ফরিদপুরের ভাঙ্গা তে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্পের প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে ফরিদপুরের ভাঙ্গা, নগরকান্দা ও সালথা উপজেলায় প্রায় তিনশ একর জমি অধিগ্রহণ করা হয়। এর আগে প্রথম ধাপে এসব জমির মালিককে ২৬০ কোটি টাকার চেক, দ্বিতীয় ধাপে ১৬ কোটি টাকা এবং তৃতীয় ধাপে ৩০০ জনের মধ্যে ১২ কোটি ৩৪ লাখ ৫৬০ টাকার চেক বিতরণ করা হয়। বৃহস্পতিবার ওই প্রকল্পের আরও ৭৫ জনের মধ্যে ২ কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ৬০৯ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়।

জমি অধিগ্রহণের এসব চেক বিতরণে অযথা দুর্ভোগ লাঘবের উদ্দেশে এখন থেকে প্রতিমাসে নিয়মিতভাবে সংশ্লিষ্ট উপজেলা হতে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে চেক বিতরণ করা হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানান।

আরও জানুনঃ তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভাঙ্গায় প্রতিপক্ষের হামলা আহত অর্ধশত

  • Facebook
  • Twitter
  • Google+
  • Linkedin
  • Pinterest

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This div height required for enabling the sticky sidebar